স্মার্ট এনসারস!

অসম প্রেম।
মেয়েটা সবে ২২, অসাধারণ সুন্দরী। একই সংগে প্রচন্ড মেধাবী, পরিশ্রমী ও বুদ্ধিমতিও।
 
ছেলেটা, মানে ভদ্রলোকের বয়স ঠিক ডাবল মানে ৪৪। প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। হ্যান্ডসাম।
 
মেয়েটা খোঁচা মেরে কথা বলে মজা নেয় সবসময়।
প্রায়ই ছেলেটাকে বলে, ‘তুমি তো আমার যোগ্যই না। বুইড়া। চেহারাও ভালো না। আমি চাইলে আমার চেয়েও বয়সে ছোট, হ্যান্ডসাম ছেলে বিয়ে করতে পারি। কেন যে তোমাকে পছন্দ করলাম?’
 
ছেলেটা মেয়েটির কথায় ভালবাসা খুঁজে পায়। হাসে।
যাই হোক, ‘ন্যাশনাল আইসক্রিম ডে’র ফেয়ার থেকে ফিরছে প্রেমিক যুগল।
 
মেয়েটার আবারও সেই একই খোঁচা! ‘কি ভুলে যে তোমার মতো বুইড়াকে পছন্দ করতে গেলাম?’
 
‘আমিও কিন্ত সেটাই ভাবছি, তোমার যা যোগ্যতা- তাতে তোমার উচিৎ ছিল ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছেলেকে বিয়ে করা, কেন যে এত বড় ভুলটা করতে গেলে?’
 
‘ডোনাল্ড ট্রাম্প হলেই আমি রাজি, ওর ছেলেকে কি দরকার? ছেলে তো আর প্রেসিডেন্ট না!’ দুষ্ট মেয়েটার ঝটপট স্মার্ট এনসার।
 
বাংলাদেশের যাদু শিল্পী আজরা জেবিন।
গিয়েছেন লস এঞ্জলেস, বিশ্বসেরা যাদু শিল্পী ডেভিড কপার ফিল্ড এর যাদু প্রদর্শণী দেখতে।
 
ডেভিড কপার ফিল্ড যাদু দেখাচ্ছেন আর মিষ্টি মেয়ে আজরা জেবিনও মুগ্ধতার দৃষ্টি নিয়ে দেখে যাচ্ছেন।
 
হঠাৎই ডেভিড কপার ফিল্ড ডাকলেন আজরা জেনিকে। যাদু দিয়ে তৈরী করে ফেললেন একটা গোলাপ ফুল এবং তুলে দিলেন আজরা জেবিন এর হাতে।
 
সেই আজরা জেবিন ঢাকায় ফিরে সাংবাদিকদের কাছে গল্প করছিলেন সেদিনের সেই আনন্দময় মুহুর্তটি নিয়ে।
 
এক বেরসিক সাংবাদিক বলে উঠলেন, ‘কপার ফিল্ড যদি আপনাকে বিয়ে করতে চায়- আপনি কি রাজী হবেন?’
 
‘অতটা আশা করা কি ঠিক হবে?’ স্পষ্টভাষী আজরা জেবিনের তাৎক্ষনাত স্মার্ট এনসার।
 
প্রেসিডেন্ট ওবামা রাতে একটু সময় বের করতে পারলেই ফাষ্ট লেডী মিসেল ওবামাকে নিয়ে কোন রেষ্টুরেন্টে যেতেন ডিনার করতে, সাধারণ পরিবেশে, প্রোটকল ভেংগে।
 
ওয়াশিংটন ডিসিতে একটি রেষ্টুরেন্টে প্রেসিডেন্ট দম্পত্তী বসে ডিনার করছিলেন।
 
হঠাৎই হোটেলের মালিক ভদ্রলোক এসে বেশ ভদ্র ভাবে মিসেস ওবামাকে অনুরোধ করলেন তার সংগে একটু পার্সোনালী কথা বলতে। মিসেস ওবামা গেলেন সেই হোটেল মালিকের সংগে, মিনিট পাঁচেক পর ফিরেও আসলেন ডিনারের টেবিলে।
 
প্রেসিডেন্ট ওবামা জানতে চাইলেন কৌতুহলী হয়ে, ‘কি বললেন হোটেল ওনার আমেরিকার ফাষ্ট লেডীকে?’
 
মিসেস ওবামা বললেন, ‘বললেন যে যৌবনে ওনি আমাকে ভালবেসে ফেলেছিলেন কিন্তু মুখ ফুটে আমাকে বলার সুযোগ পাননি, তার আগেই নাকি আমি তোমাকে বিয়ে করে ফেলেছি; সেই দুঃখটাই প্রকাশ করলেন ভদ্রলোক’।
 
প্রেসিডেন্ট উচ্চস্বরে হেসে দিলেন। বললেন, ‘ওয়াও! তাহলে তো তুমি আজ এই হোটেলের মালিক থাকতে!’
 
‘জ্বি না, তাহলে- এই ভদ্রলোক আজ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট থাকতেন’। মিশেল ওবামার স্মার্ট এনসার।
 
en.pdf24.org    Send article as PDF